You are currently viewing সমার্থক শব্দ | বাংলা সমার্থক শব্দ

সমার্থক শব্দ | বাংলা সমার্থক শব্দ

বিগত ১২ বছর বিসিএস, প্রাথামিক শিক্ষক, শিক্ষক নিবন্ধন, ব্যাংক এবং বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় বার বার আসা সমার্থক শব্দ সমূহ। আশাকরি এখান থেকে যে কোন পরীক্ষায় কমন পাওয়া যাবে।

সমার্থক শব্দ

সূর্য এর সমার্থক শব্দ – আদিত্য, তপন, দিবাকর, ভাস্কর, ভানু, মার্তণ্ড, রবি, সবিতা, আদিত্য, অর্ক, কিরণমালী, বিভাকর, বিভাবসু,  মিহির, আফতাব।

রবি এর সমার্থক শব্দ – আদিত্য, তপন, দিবাকর, ভাস্কর, ভানু, মার্তণ্ড, রবি, সবিতা, আদিত্য, অর্ক, কিরণমালী, বিভাকর, বিভাবসু,  মিহির, আফতাব।

চাঁদ এর সমার্থক শব্দ – চন্দ্র, সুধাকর, শশী, শশধর, শশাঙ্ক, দ্বিজরাজ, বিধু, সোম, চন্দ্রমা, নিশাপতি, নিশাকর, সুধানিধি, হিমাংশু, শীতাংশু, সুধাংশু, ইন্দু, সিতাংশু, মৃগাঙ্ক, নিশানাথ, রজনীকান্ত, তারাপতি, তারানাথ, জ্যোৎস্নানাথ, রাকেশ, সুধাময়।

অগ্নি এর সমার্থক শব্দ – আগুন, অনল, পাবক, বহ্নি, হুতাশন, হুতাশ, কৃশানু, বৈশ্বানর, বিভাবসু, দহন, শিখা, কৃশানু, সর্বভূক, সর্বশুচি।

আগুন এর সমার্থক শব্দ – অগ্নি, আগুন, অনল, পাবক, বহ্নি, হুতাশন, হুতাশ, কৃশানু, বৈশ্বানর, বিভাবসু, দহন, শিখা, কৃশানু, সর্বভূক, সর্বশুচি।

পৃথিবী এর সমার্থক শব্দ – জগৎ, বসুধা, বসুন্ধরা বসুমতী, ভূ, ভুবন, অবনি, ধরণি, ধরা ধরিত্রী, মহি, মেদিনী, ক্ষিতি, বিশ্ব, ধরাতল, ধরাধাম, ধরিত্রী, বসুমাতা, ভূমন্ডল, মর্ত, ভূতল, পৃথ্বী, দুনিয়া, জাহান।

বৃক্ষ এর সমার্থক শব্দ – গাছ, তরু, দ্রুম, শাখী, পাদপ, মহীরুহ, উদ্ভিদ, অটবি বিটপী, পর্ণী, গাছপালা, পল্লবী, শৃঙ্গী।

মন এর সমার্থক শব্দ – হৃদয়, চিত্ত, অন্তর, হিয়া, দিল, পরান, অন্তঃকরণ, অন্তরাত্মা, চিত্তপট, মানসলোক, মনোজগৎ।

বন্ধু সমার্থক শব্দ –  সখা, মিত্র, সুহৃৎ, বান্ধব, মিতা, দোস্ত, ইয়ার।                

নদী এর সমার্থক শব্দ – নদ, নদনদী, তটিনী, প্রবাহিণী, তরঙ্গিণী, শৈবলিনী, স্রোতস্বিনী, স্রোতস্বতী, নির্ঝরিণী, গাঙ, সরিৎ, সমুদ্রদয়িতা, স্রোতোবহা, মন্দাকিনী, স্রোতোবহ, কল্লোলিনী।

আকাশের সমার্থক শব্দ – অম্বর, ব্যোম, গগণ, অন্তরিক্ষ, শূন্যলোক, আসমান, দ্যুলোক, অভ্র, নীলিম, শূন্য, নভ:, অনন্ত, সুরপথ, অম্বরতল, খলোক, খগোল, নক্ষত্রলোক, নভোলোক, নভোমন্ডল, নভস্তল, নভস্থল।                   

চোখের সমার্থক শব্দ – চক্ষু, আখিঁ, দর্শনেন্দ্রিয়, লোচন, নয়ন, নয়না, নেত্র, অক্ষি, আঁখ, দর্শন।     

সমুদ্র এর সমার্থক শব্দ – সাগর, সায়র, অর্ণব, সিন্ধু, দরিয়া, জলধি, বারিধি, অম্বুধি, অম্বুনিধি, অম্ভোধি, অম্ভোনিধি, পাথার, পারাবার,, জলনিধি, প্রচেতা, জলেন্দ্র, অকূল, অকূলপাথার, জলেশ্বর, জলারণ্য, জলধর, নীরনিধি, তোয়নিধি, পয়োধি, জলাধিপ, বারিধর, বারিনিধি, বারীন্দ্র, বারীশ, ইরাবান, দ্বীপী, নদীকান্ত, রত্নাকর, রত্নগর্ভ, নীলাম্বু, ধরণীপ্লব, ঊর্মিমালী, মকরালয়, নীরধি, তোয়ধি।

তপন এর সমার্থক শব্দ – সূর্য, আদিত্য,  দিবাকর, ভাস্কর, ভানু, মার্তণ্ড, রবি, সবিতা, আদিত্য, অর্ক, কিরণমালী, বিভাকর, বিভাবসু,  মিহির, আফতাব।          

পত্নী এর সমার্থক শব্দ – বউ, জায়া, ভার্যা, সহধর্মিণী, জীবনসাথী, স্ত্রী, অর্ধাঙ্গী, দয়িতা, কলত্র, অঙ্গনা বনিত, দারা, ধর্মপত্নী।                     

হৃদয় এর সমার্থক শব্দ – মন, চিত্ত, অন্তর, হিয়া, দিল, পরান, অন্তঃকরণ, অন্তরাত্মা, চিত্তপট, মানসলোক, মনোজগৎ।

গৃহ এর সমার্থক শব্দ – ঘর, আলয়, ভবন, নিলয়, নিকেতন, সদন, আগার, বাড়ি, আবাস, বাটি, বাটিকা, গেহ, নিকেত, বাড়িঘর, কক্ষ, বাসস্থান, আশ্রয়।

পতাকার সমার্থক শব্দ – কেতন,কেতু, ঝণ্ডা, ঝান্ডা, ধ্বজ, ধ্বজা, ধ্বজপট, নিশান, বৈজয়ন্তী।

রাত এর সমার্থক শব্দ – রাত্রি, রাত্তির, নিশি, নিশীথ, রাত, রজনী, যামিনী, যামবতী, যামী, যামিকা, শমনী, শর্বরী, বিভাবরী, নিশীথিনি, নিশুতি, ক্ষণদা, ত্রিযামা, নক্ত, ক্ষপা, তামসী, তারকিণী, অসুরা, অন্ধিকা।

অনিল এর সমার্থক শব্দ – বাতাস, সমীর, সমীরণ, অনিল, মরুৎ, মারুত, বাত, বায়ু, আশুগ, পবমান, সদাগতি, নভ:শ্বাস, শব্দবহ, অগ্নিসখ, বহ্নিসখ, জগতায়ু, জগৎপ্রাণ, মাতরিশ্বা, জগদ্বল, গন্ধবহ, গন্ধবাহ, প্রভঞ্জন, হাওয়া।

বায়ু এর সমার্থক শব্দ – বাতাস, সমীর, সমীরণ, অনিল, মরুৎ, মারুত, বাত, বায়ু, আশুগ, পবমান, সদাগতি, নভ:শ্বাস, শব্দবহ, অগ্নিসখ, বহ্নিসখ, জগতায়ু, জগৎপ্রাণ, মাতরিশ্বা, জগদ্বল, গন্ধবহ, গন্ধবাহ, প্রভঞ্জন, হাওয়া।

পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিপরীত শব্দ

বাতাসের সমার্থক শব্দ – অনিল, সমীর, সমীরণ, অনিল, মরুৎ, মারুত, বাত, বায়, আশুগ, পবমান, সদাগতি, নভ:শ্বাস, শব্দবহ, অগ্নিসখ, বহ্নিসখ, জগতায়ু, জগৎপ্রাণ, মাতরিশ্বা, জগদ্বল, গন্ধবহ, গন্ধবাহ, প্রভঞ্জন, হাওয়া।

শুরু সমার্থক শব্দ- সূচনা, সূত্রপাত, সমারম্ভ, প্রারম্ভ, উপক্রমণিকা, অবতারণা, অবতরণিকা, অনুবদ্ধ, গৌরচন্দ্রিকা, ভূমিকা, মুখবন্ধ, প্রস্তাবনা, প্রবর্তনা।                          

মেয়ের সমার্থক শব্দ – নন্দিনী, দুহিতা, পুত্রী, তনয়া, ঝি, তনুজা, আত্মজা, দারিকা, মাইয়া।

অর্ক এর সমার্থক শব্দ – আদিত্য, তপন, দিবাকর, ভাস্কর, ভানু, মার্তণ্ড, রবি, সবিতা, আদিত্য, অর্ক, কিরণমালী, বিভাকর, বিভাবসু,  মিহির, আফতাব।                 

বিভাবরী এর সমার্থক শব্দ – রাত্রি, রাত্তির, নিশি, নিশীথ, রাত, রজনী, যামিনী, যামবতী, যামী, যামিকা, শমনী, শর্বরী, বিভাবরী, নিশীথিনি, নিশুতি, ক্ষণদা, ত্রিযামা, নক্ত, ক্ষপা, তামসী, তারকিণী, অসুরা, অন্ধিকা।                   

অবনী সমার্থক শব্দ – পৃথিবী, জগৎ, বসুধা, বসুন্ধরা বসুমতী, ভূ, ভুবন, অবনি, ধরণি, ধরা ধরিত্রী, মহি, মেদিনী, ক্ষিতি, বিশ্ব, ধরাতল, ধরাধাম, ধরিত্রী, বসুমাতা, ভূমন্ডল, মর্ত, ভূতল, পৃথ্বী, দুনিয়া, জাহান।

আমন্ত্রণ শব্দের সমার্থক শব্দ – নিমন্ত্রণ, আহ্বান, আবাহন, আহূতি, ডাক, সম্বাষণ, নেমন্তন্ন

স্বর্গ এর সমার্থক শব্দ- স্বর্গলোক, স্বর্গধাম, স্বর্গরাজ্য, স্বর্গপুরী, দেবলোক, দেবপুরী, দেবালয়, দ্যুলোক , অমর্ত্যলোক , অমর্ত্যভুবন, ত্রিদিব, ইন্দ্রলোক, ইন্দ্রপুরী, অমৃতলোক, ঊর্ধ্বলোক, বেহেশত।

চিঠি সমার্থক শব্দ – পত্র ,পাতা, পল্লব, পত্তর, চিঠি, দ্রব্যাদি।    

রাতের সমার্থক শব্দ – রাত্রি, রাত্তির, নিশি, নিশীথ, রাত, রজনী, যামিনী, যামবতী, যামী, যামিকা, শমনী, শর্বরী, বিভাবরী, নিশীথিনি, নিশুতি, ক্ষণদা, ত্রিযামা, নক্ত, ক্ষপা, তামসী, তারকিণী, অসুরা, অন্ধিকা।

পর্বত এর সমার্থক শব্দ – নগ, গিরি, অচল, শৈল, মহীধর, ভূধর, অদ্রি, শিখরী, শৃঙ্গী, সহীধ্য।

হস্তী এর সমার্থক শব্দ –  হাতি, করী, দ্বিপ, মাতঙ্গ, গজ, বারণ, দণ্ডী, দ্বিরদ, কুঞ্জর।

সর্প  এর সমার্থক শব্দ –  অহি, ভুজঙ্গ, ফণী, নাগ, পন্নগ, উরগ, বিষধর, আশীবিষ, ভুজগ, ফণাধর।

ময়ূর এর সমার্থক শব্দ –  শিখণ্ডী,  কেকা, কেকী, কলাপী, শিখী, বর্হী।

সিংহ এর সমার্থক শব্দ –  কেশরী, হরি, মৃগেন্দ্র, মৃগরাজ, পশুরাজ।

মৌমাছি এর সমার্থক শব্দ –  ভ্রমর, অলি, মধুপ, মধুকর, শিলীমুখ, দ্বিরেফ।

বন এর সমার্থক শব্দ – অটবি কাণ্ডার, বনানী বিপিন, কানন, অরণ্য, উপবন।

কোকিল এর সমার্থক শব্দ – পিক, পরভৃত, কাকপুষ্ট, পরপুষ্ট, কলকন্ঠ, বসন্ত, দূত, অন্যপুষ্ট, মধুসখা, মধুস্বর।

ঢেউ এর সমার্থক শব্দ –  ঊর্মি, বীচি, তরঙ্গ।

পাখির সমার্থক শব্দ – বিহগ, বিহঙ্গ, খগ, খেচর, শকুন্ত, পক্ষী

অশ্রু এর সমার্থক শব্দ –  নেত্রবারি, ধারাপাত, বর্ষণ, বিন্দুমোচন, লোর, চোখের জল।

ফুল এর সমার্থক শব্দ –  পুষ্প, কানন, প্রসূন, কুসুম, রঙ্গন।

সংবাদ এর সমার্থক শব্দ –  খবর, বার্তা, ফরমান, সন্দেশ, সন্ধান, তত্ত্ব, সমাচার।

কূল এর সমার্থক শব্দ –  সৈকত, তীর, তট, পুলিন, কিনার ।

পুত্র এর সমার্থক শব্দ  – দুলাল, তনয়, খোকা, ছেলে ।

রাজা  এর সমার্থক শব্দ –  নরেন্দ্র, নরেশ, নৃপতি, নরপতি, ভূপতি, ভূপাল।

সাপ এর সমার্থক  শব্দ –   অহি, আশীবিষ, নাগ, ফণী, সর্প, ভুজগ, ভুজঙ্গম, উরগ।

অন্ধকার  এর সমার্থক শব্দ –  আঁধার, তমসা, তম,  তিমির,  নিরালোক, অমা, শর্বর।

আলো এর সমার্থক শব্দ –  ভাতি, দীপ্ত, প্রভা, জ্যোতি, উদ্ভাস, আভা, বিভা, নূর, রওশন।

জ্যোৎস্না এর সমার্থক শব্দ – চন্দ্রিকা, কৌমুদী, চাঁদিনী ।

কিরণ  এর সমার্থক শব্দ –  কর, প্রভা, দীপ্তি, জ্যোতি, রশ্মি।

জল  এর সমার্থক শব্দ –  অম্বু, জীবন, নীর, পানি, সলিল, পয়ঃ, বারি, অপ, উদক, তোয় ।

মেঘ  এর সমার্থক শব্দ –  অভ্র, বারিদ, জলধর, জলদ, ঘন, নীরদ ।

বিদ্যুৎ এর সমার্থক শব্দ –  তড়িৎ, চপলা, সৌদামিনী, বিজলী, দামিনী, ক্ষণপ্রভা।

পদ্ম  এর সমার্থক শব্দ –  পঙ্কজ, সরোজ, রাজীব, উৎপল, কমল, শতদল, সরোবর, অরবিন্দ।

স্বর্গ  এর সমার্থক শব্দ –  দেবলোক, দ্যুলোক, বেহেশত, সুরলোক, সুর, প্রভাকর, বিভাবসু, মিহির, তপন, ত্রিদিব।

দোকান এর সমার্থক শব্দ –  বিপণি, পণ্যগৃহ, আপণ, পণ্য-বিচিত্রা।

ধন এর সমার্থক শব্দ –   ঐশ্বর্য, অর্থ, সম্পদ, বিত্ত, সম্পত্তি, বিভব, বৈভব, দৌলত।

সুন্দর এর সমার্থক শব্দ –  মনোরম, মনোহর, শোভন, সুদৃশ্য, চারু, সুচারু, সুদর্শন, ললিত, সুশ্রী, সুকান্ত, রমণীয়, রম্য, কমনীয়, শোভাময়।

পরীক্ষার বার বার আসা সন্ধি বিচ্ছেদ

আলো প্রতিশব্দ – আলোক, রশ্মি, কিরণ, অংশু, কর, দীপ্তি, প্রভা, জ্যোতি, উদ্ভাস, আভা, বিভা, ময়ূখ, দ্যুতি; ভাতি, ঔজ্জ্বল্।

আগুন এর প্রতিশব্দ – অগ্নি, অনল।

পাখির প্রতিশব্দ – বিহগ, বিহঙ্গ, খগ, বিহঙ্গম, খেচর, শকুন্ত, পতত্রী, পক্ষী।                       

আনন্দ প্রতিশব্দ – পুলক, হর্ষ, হরষ, আহ্লাদ, সুখ, স্ফূর্তি, ফুর্তি, সন্তোষ, পরিতোষ, উৎফুল্লতা, প্রফুল্লতা

বন্ধুর প্রতিশব্দ – সখা, মিত্র, সুহৃৎ, বান্ধব, মিতা, দোস্ত, ইয়ার।

সূর্যের প্রতিশব্দ – আদিত্য, তপন, দিবাকর, ভাস্কর, ভানু, মার্তণ্ড, রবি, সবিতা, আদিত্য, অর্ক, বিভাবসু,  মিহির, আফতাব।

চন্দ্র প্রতিশব্দ – চন্দ্র, সুধাকর, শশী, শশধর, শশাঙ্ক, দ্বিজরাজ, বিধু, সোম, চন্দ্রমা, নিশাপতি, নিশাকর, জ্যোৎস্নানাথ, রাকেশ, সুধাময়।                    

চাঁদ প্রতিশব্দ – চন্দ্র, বিধু, সোম, চন্দ্রমা, নিশাপতি।

আঁধার প্রতিশব্দ – তিমির, আন্ধার, তমস্র, তম, অতনু।



Share this

Leave a Reply