You are currently viewing উপাত্ত কাকে বলে

উপাত্ত কাকে বলে

জানতে পারবো তথ্য ও উপাত্ত কাকে বলে, উপাত্ত কত প্রকার ও কিকি? প্রাথমিক উপাত্ত, মাধ্যমিক উপাত্ত, বিন্যস্ত উপাত্ত কাকে বলে, অবিন্যস্ত উপাত্ত কাকে বলে, প্রচুরক কাকে বলে, আয়তলেখ কাকে বলে এবং লেখচিত্র কাকে বলে?

উপাত্ত

সংখ্যাভিত্তিক কোন তথ্য হচ্ছে একটি পরিসংখ্যান। আর তথ্য নির্দেশক সংখ্যাগুলো হচ্ছে পরিসংখ্যানের উপাত্ত।

ধরা যাক কোন এক পরীক্ষায় ৮ম শ্রেণির অধ্যয়নরত ২০ জন শিক্ষার্থীর গণিতে প্রাপ্ত নম্বর হচ্ছে-

৫৫, ৭০, ৮৭, ৪৫, ৭৬, ৩৬, ৯৭, ৬৭, ৫৪, ৯৩, ৬৮, ৭৬, ৪৫, ৭৩, ৬৮, ৪৮, ৯,০, ৬৬, ৬৪

এখানে উপরের নম্বর সমূহ এ তালিকার একটি পরিসংখ্যান। সুতরাং সংখ্যা দ্বারা প্রকাশিত যে কোন তথ্যই পরিসংখ্যানের উপাত্ত।

পরিসংখ্যানের উপাত্ত কত প্রকার ও কি কি?

উপাত্ত কত প্রকার ও কি কি

(ক) প্রত্যক্ষ বা প্রাথমিক উপাত্ত

(খ) পরোক্ষ বা মাধ্যমিক উপাত্ত

প্রাথমিক উপাত্ত কাকে বলে

প্রাথমিক উপাত্ত

উপরে বর্ণিত পরীক্ষায় গণিতে প্রাপ্ত নম্বরগুলো প্রাথমিক উপাত্ত। এরূপ উপাত্ত অনুসন্ধানকারী সরাসারি উৎস থেকে সংগ্রহ করতে পারে।অর্থাৎ উৎস থেকে সরাসারি যে উপাত্ত সংগৃহীত হয় তাই হলো প্রাথমিক উপাত্ত। প্রাথমিক উপাত্তের নির্ভরযোগ্যতা অনেক বেশি। করনএটি উৎস থেকে সরাসারি সংগ্রহ করা হয়ে থাকে।

মাধ্যমিক উপাত্ত কাকে বলে

মাধ্যমিক উপাত্ত

পরোক্ষ উৎস থেকে সংগৃহীত উপাত্ত সমূহকে মাধ্যমিক উপাত্ত বলে। যেমন পৃথিবীর কয়েকটি বড় শহরের জানুয়ারী মাসের তাপমাত্রা আমাদের প্রয়োজন। যেভাবে গণিতের প্রাপ্ত নম্বরগুলো সংগ্রহ করেছি সেভাবে তাপমাত্রার জন্য আমাদের সংগ্রহ করা সম্ভব নয়।

এক্ষেত্রে কোন প্রতিষ্ঠানের সংগৃহীত উপাত্ত আমরা আমাদের প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারি। আর এটি হবে মাধ্যমিক উপাত্ত। এভাবে সংগৃহীত উপাত্তের নির্ভর যোগ্যতা অনেক কম হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন- সমকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে

অবিন্যস্ত উপাত্ত কাকে বলে

অবিন্যস্ত উপাত্ত

উপরে বর্ণিত শিক্ষার্থীদের গণিতে প্রাপ্ত নম্বর গুলো এলোমেলো ভাবে দেওয়া আছে। তাই এগুলো হলো অবিন্যস্ত উপাত্ত। নম্বরগুলো মানের কোন ক্রমে সাজানো নেই। অর্থাৎ উপাত্তগুলো যদি কোন প্রকার বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী সাজানো না হয় তখন তাকে অবিন্যস্ত উপাত্ত বলে।

বিন্যস্ত উপাত্ত কাকে বলে

বিন্যস্ত উপাত্ত

উপরে বর্ণিত নম্বরগুলো মানের উর্ধ্বক্রম অনুসারে সাজালে আমরা পাই

৩৬, ৪৫, ৪৫, ৪৮, ৫৪, ৫৫, ৬৪, ৬৬, ৬৭, ৬৮, ৬৮, ৭০, ৭৩, ৭৬, ৭৬, ৮৭, ৯,০, ৯৩, ৯৭  

এভাবে সাজানো উপাত্তসমূহকে বিন্যস্ত উপাত্ত বলে।

সংগৃহীত উপাত্ত কোনো বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী বা মানের উর্ধ্বক্রম বা অধক্রম অনুসারে সাজানো হলে তাকে বিন্যস্ত উপাত্ত বলে।

প্রচুরক কাকে বলে

প্রচুরক

কোনো উপাত্তে যে সংখ্যাটি সবচেয়ে বেশি বার থাকে তাকে প্রচুরক বলে।

মনেকরি

৪, ৫, ১১, ২৩, ১৩, ১৫, ১৮, ২১, ১১, ১৭, ২৩, ১১ একটি উপাত্ত।

উপাত্তটি মানের উর্ধ্বক্রম অনুসারে সাজালে হয়, ৪, ৫, ১১, ১১, ১১, ১৩, ১৫, ১৭, ১৮, ২১, ২৩, ২৩

সাজানো উপাত্ত গুলো লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে ১১ সংখ্যাটি সর্বাধিক চার বার আছে, তাই এ অংকের প্রচুরক হবে ১১

এটি তোমরা করে দেখ পারো কিনা-

প্রচুরক করার সহজ নিয়ম

আয়তলেখ কাকে বলে

আয়তলেখ

আয়তলেখ হচ্ছে গণসংখ্যা সারণির একটি লেখচিত্র। কোন পরিসংখ্যান যখন লেখচিত্রের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয় তখন তা বোঝা ও সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য  সহজ হয় ।

ট্যালি চিহ্ন

একটি শ্রেণিতে যত সংখ্যক ঘটনসংখ্যা বা গণসংখ্যা থাকে তত সংখ্যক ট্যালি ঘরে খাড়া দাগ ( | ) দেওয়া হয়।গণসংখ্যা পাঁচটি হলে পূর্বের চারটি খাড়া দাগের সাথে ( / ) আড়াআড়িভাবে আরেকটি দাগ দেওয়া হয় এভাবে গণসংখ্যার উপর ভিত্তিকরে দাগ দেওয়াকে ট্যালি চিহ্ন বলে।

লেখচিত্র কাকে বলে

লেখচিত্র

সংগৃহীত উপাত্ত বা তথ্য সহজে বোঝা ও দৃশ্যমান করার পদ্ধতিকে লেখচিত্র বলে।

আরো পড়ুন- গুণিতক কাকে বলে

Share this

This Post Has 4 Comments

  1. Q

    Thanks amaderke gananor gonno

  2. Barsha

    pore onek upokrito holam

    1. Md

      আপনার মতামত শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply